আপনার প্রতিদিনের ৩টা ভুল কাজই পিঠে ব্যথার জন্য দায়ী

পিঠ ও কোমর ব্যথা সম্পর্কে নতুন করে কোনও পরিচয় করানোর দরকার নেই। এই সময়ের অধিকাংশ মানুষকেই এই সমস্যায় ভুগতে দেখা যায়। আধুনিক জীবনযাপনের সঙ্গে এই সমস্যা ওতপ্রোত ভাবে জড়িত। চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞরা এই সমস্যাকে ‘লাইফস্টাইল ডিজিজ’ হিসেবে চিহ্নিত করেছেন। যুক্তরাজ্যের প্রখ্যাত ফিজিওথেরাপিস্ট স্যামি মার্গো তিনটি দৈনন্দিন কাজকে এই অসুখের জন্য বিশেষ ভাবে দায়ী করেছ্বন। সেই সঙ্গে তিনি সমস্যা সমাধানের মুক্তির উপায়ও জানিয়েছেন। আমাদের আজকের এই প্রতিবেদন থেকে দেখে নেওয়া যাক, স্যামির চিহ্নিত সেই বিষয়গুলিকে-

১। দাঁত মাজায় দাঁত ও মাড়ির স্বাস্থ্য রক্ষিত হয় বটে, কিন্তু আমাদের দাঁত ব্রাশ করার ভঙ্গিমা মেরুদণ্ডের ব্যাপক ক্ষতি করে। বিশেষ করে বেসিন বা সিঙ্কের ওপরে ঝুঁকে ব্রাশ করাকে বিপজ্জনক বলে চিহ্নিত করেছেন স্যামি মার্গো। তার মতে দাঁত মাজার সময়ে সোজা দাঁড়ানোই শ্রেয়। আর পালা করে দেহের ভর এক পা থেকে অন্য সরিয়ে নেওয়ার কাজটা প্রতি এক মিনিট অন্তর করে যেতে হবে।

২। মোবাইল ফোন দেখার সময়েও কিন্তু শরীরী ভঙ্গিমাগত বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে। বেশি ঝুঁকে অনেকক্ষণ ধরে মোবাইল সার্ফ করা বা ট্যাব দেখা বিপজ্জনক। এতে ঘাড়ের পেশিগুলি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সেই সঙ্গে মেরুদণ্ডও। এমন ক্ষেত্রে ৩ ইঞ্চি ঝোঁকার অর্থ ঘাড়ের উপরে ৪২ পাউন্ড ভার চাপানো। সোজা হয়ে বসে মোবাইল দেখা অভ্যাস করতে বলেছেন স্যামি।

৩। ঘুমের আগে বই পড়াকে আমরা মানসিক স্বাস্থ্যের পক্ষে শুভ বলেই জানি। কিন্তু স্যামি জানাচ্ছেন, ভুল অ্যাঙ্গেলে বই ধরা বা ঘার বেঁকিয়ে পড়ার কারণে ঘাড় ও পিঠের পেশি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। সঠিক পদ্ধতি ও ভঙ্গিমা অনুসরণ না করলে পরে এই অভ্যাস বিপজ্জনক হয়ে দাঁড়াতে পারে বলেই জানাচ্ছেন স্যামি মার্গো।

যেসব কঠিন রোগের আগাম ইঙ্গিত দেয় নখের রঙ!

আমাদের শরীর আমাদের কঠিন রোগের ইঙ্গিত দিয়ে দেয়। আর এই ইঙ্গিত অসুস্থ হওয়ার অনেক আগে থেকেই শুরু হয়ে যায়। নিজের শরীরের দিকে নজর রাখলে, খুব সহজেই সঠিক সময় চিকিৎসা শুরু করা যায়। 2চিকিৎসকেরা বলে থাকেন, আমাদের হাত-পায়ের নখ মাঝে মধ্যেই কঠিন রোগের ইঙ্গিত দিতে থাকে। তবে অনেক সময়ই সেই উপসর্গগুলোকে আমরা এড়িয়ে চলি।

চিকিৎসকেরা বলছেন, হঠাৎ যদি দেখেন আপনার হাতের, পায়ের নখের রং হলুদ হয়ে পড়ছে, তাহলে বুঝতে হবে আপনার লিভার ও কিডনির সমস্যা হয়েছে। এরকম অবস্থায় দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ দরকার। নখের ওপর সাদা সাদা ছোপ থাকলে পেটের সমস্যা হতে পারে আপনার। দীর্ঘদিন ধরে গ্যাস, অম্বলে ভুগলে নখে এই ধরণের ছাপ হতে পারে।

নখের রং কালচে বা নীলচে হয়ে পড়লে সাধারণত, ফুসফুসের সমস্যার লক্ষণ। এই সমস্যা হলে এধরণের উপসর্গ দেখা যায়। নখ ভঙ্গুর হয়ে পড়লে সাধারণ আর্থারাইটিস হওয়ার লক্ষণ। অনেক সময় ফাঙ্গাল ইনফেকশনের জন্যও এরকম ঘটতে পারে। নখের চারপাশ থেকে চামড়া উঠলে বুঝতে হবে আপনার শরীরে পুষ্টির অভাব রয়েছে। কিংবা ফাঙ্গাল ইনফেকশনের কারণেও ঘটতে পারে এই সমস্যা।